ব্রেকিং নিউজ
Home / সাহিত্য / চলে গেলেন লেখক গবেষক আবুল মকসুদ

চলে গেলেন লেখক গবেষক আবুল মকসুদ

Spread the love

দেশের খ্যাতিমান গবেষক, সাংবাদিক ও কলাম লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে রাজধানীর বাসায় অজ্ঞান হয়ে পড়েন। পরে তাকে স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করে হাসপাতাল কর্র্তৃপক্ষ। চিকিৎসকরা জানান, তিনি আগেই মারা গেছেন। সৈয়দ আবুল মকসুদের ছেলে সৈয়দ নাসিফ মাকসুদ গণমাধ্যমকে তার বাবার তথ্য নিশ্চিত করেন। সৈয়দ আবুল মকসুদের বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই লেখকের মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন।

আবুল মকসুদের পারিবারিক বন্ধু ও ব্র্যাকের অভিবাসনবিষয়ক কর্মসূচির প্রধান শরীফুল হাসান দেশ রূপান্তরকে জানান, গতকাল রাতে মরদেহ স্কয়ার হাসপাতালের মরচুয়ারিতে রাখা হয়েছে। একমাত্র মেয়ে কলকাতা যাওয়ায় তিনি আসার পর মরদেহ দাফনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। মেয়ের আজ-কালের মধ্যেই দেশে ফেরার কথা।

সৈয়দ আবুল মকসুদের মৃত্যুতে বিভিন্ন অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে আসে। হাসপাতালে ও পরে বাসায় মরদেহ দেখতে এবং শোকপ্রকাশ করে নানা অঙ্গনের মানুষ ছুটে যান। ফেইসবুকসহ নানা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার অনুরাগীরা শোক ও শ্রদ্ধা প্রকাশ করেন।

এই লেখকের মৃত্যুতে রাজনীতি, সংস্কৃতিসহ বিভিন্ন অঙ্গনের বিশিষ্টজনরা শোকপ্রকাশ করেছেন। তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক ও উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা জি এম কাদের এমপি, জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ শোক ও তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেছেন।